বর্বরদের জন্য অপেক্ষা : সি.পি.কাভাফি : অনুবাদ – মলয় রায়চৌধুরী

বর্বরদের জন্য অপেক্ষা 

সি. পি. কাভাফি

অনুবাদ : মলয় রায়চৌধুরী

অ্যাবসার্ড কবিতার প্রধান ব্যক্তিত্ব , আধুনিক ইউরোপীয় কবিতা এক প্রধান কন্ঠস্বর। কাভাফির জন্ম ১৮৬৩ সালে মিশরের আলেকজান্দ্রিয়ায়। জন্ম মিশরে হলেও জাতিগত ও ভাষিক পরিচয়ে তিনি ছিলেন গ্রিক। সারা জীবন গ্রিক ভাষাতেই লিখেছেন। লিখেছেন কেবল কবিতা,  তা সংখ্যায় অল্প হলেও প্রায় প্রতিটি কবিতায় রয়েছে তাঁর নিজস্ব অ্যাবসার্ডিটির ছাপ। প্রথমে সাংবাদিকতা দিয়ে পেশা শুরু করলেও পরে তিনি সরকারি কেরানি হিসেবে ১৯২৬ সাল পর্যন্ত কাজ করেছেন। ১৯৩৩ সালের ২৯ এপ্রিল তিনি আলেকজান্দ্রিয়াতে মারা যান। জীবদ্দশায় তিনি বহির্বিশ্বে দূরের কথা, মিশরে বা গ্রীসেও খুব একটা পরিচিত ছিলেন না। কিন্তু ইউরোপে অ্যাবসার্ড লেখালিখি গুরুত্ব পাবার পর তাঁকে মনে করা হয় পথপ্রদর্শক।

আমরা প্রতিনিধিসভায় জড়ো হয়েছি কেন, কিসের জন্য অপেক্ষা করছি ?

আজকে বর্বরদের আসবার কথা ।

.

প্রতিনিধিসভায় কোনও কাজ হচ্ছে না কেন ?

সাংসদরা কেন আইন প্রণয়ন না করে বসে আছেন? 

কারণ বর্বররা আজকে আসবে ।

.

সাংসদদের এখন আইন প্রণয়ন করে কী লাভ ?

বর্বররা একবার এখানে এসে পড়লে তারাই আইন প্রণয়ন করবে ।

.

আমাদের সম্রাট এতো ভোরবেলা উঠে পড়লেন কেন 

আর কেনই বা উনি শহরের প্রধান দরজায় সিংহাসনে বসে আছেন

মাথায় মুকুট পরে, দরবার সাজিয়ে ?

.

কারণ বর্বররা আজকে আসবে

আর সম্রাট তাদের নেতাকে অভ্যর্থনা জানাবার জন্য অপেক্ষা করছেন ।

তাকে দেবার জন্য ওনার হাতে একটা গোটানো কাগজও রয়েছে,

নানা খেতাব, গম্ভীর রকমের উপাধির তালিকা ।

.

আমাদের দুজন রাষ্ট্রদূত আর ম্যাজিস্ট্রেটরা বাইরে বেরিয়ে এসেছেন কেন

ওনাদের কারুকাজ করা লাল রঙের পোশাক পরে ?

.

ওরা নীলকান্তমণি-বসানো ব্রেসলেট পরে আছে কেন,

আঙুলে ঝলমলে পান্নার আঙটি ?

.

ওদের হাতে ছড়ি রয়েছে কেন

রুপো আর সোনার সুন্দর কাজ করা ?

.

কারণ আজকে বর্বররা আসছে

আর ওই ধরণের জিনিসে বর্বরদের চোখ ধাঁধিয়ে যায় ।

.

আমাদের বিখ্যাত বাগ্মীরা রোজকার মতন আসেননি কেন

বক্তৃতা দেবার জন্য, যা বলবার তা বলার জন্য ?

কারণ বর্বররা আজকে আসছে

আর তারা বাগ্মীতা আর বক্তৃতায় বিরক্ত বোধ করে ।

.

কেন হঠাৎ এই ধন্দ, এই বিভ্রান্তি? 

(মানুষের মুখগুলো কেমন গম্ভীর হয়ে গেছে।)

রাস্তাগুলো আর চৌমাথা এতো তাড়াতাড়ি ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে কেন

সবাই চিন্তায় মশগুল হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছে ?

.

রাত হতে চলল আর বর্বররা এখনও এলো না ।

আর সীমান্ত থেকে আমাদের যে লোকজন এসেছে তারা বলছে

বর্বর বলে আর কিছু নেই ।

.

এবার আমাদের কী হবে বর্বররা না এলে ?

ওই লোকগুলোই তো ছিল এক ধরণের সমাধান ।

About anubadak

আমি একজন অনুবাদক । এতাবৎ রেঁবো, বদল্যার, ককতো, জারা, সঁদরা, দালি, গিন্সবার্গ, লোরকা, ম্যানদেলস্টাম, আখমাতোভা, মায়াকভস্কি, নেরুদা, ফেরলিংঘেট্টি প্রমুখ অনুবাদ করেছি ।
This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s