ফ্রিদা কালও- Frida Kahlo-এর কবিতা । অনুবাদ : মলয় রায়চৌধুরী

ফ্রিদা কালও-র – Frida Kahlo ( ১৯০৭ – ১৯৫৪ ) মেহিকায়োতি পরাবাস্তব কবিতা । অনুবাদ : মলয় রায়চৌধুরী

220px-Frida_Kahlo_(self_portrait)

আমার দিয়েগো

রাতের আয়না ।

তোমার চোখ সবুজ তরোয়াল

আমার মাংসের ভেতরে,

আমাদের হাতের মাঝে ঢেউ ।

তোমার সমস্তটা এক পরিসরে ধ্বনিতে পরিপূর্ণ

আলোর ছায়ায় ।

তোমাকে বলা হতো অক্সো-ক্রোম : যে মানুষ রঙকে আয়ত্ব করে ।

আমি ক্রোমোফোর : যে রঙ বিলোয় ।

তুমি যাবতীয় মিশ্রণ

সংখ্যাদের

জীবনের ।

আমি রেখা, আঙ্গিক, ছায়াবৈচিত্র্য, চলন ।

তুমি ভরে দাই আমি নিই ।

তোমার শব্দ সমগ্র পরিসরে পর্যটন করে আর আমার কোষে পৌঁছোয়

যা আমার নক্ষত্রপূঞ্জ

তারপর তোমারগুলোতে যায়

যা আমার আলো ।

~

দিয়েগো

সত্য, এতো বিশাল, যে আমি বলতে চাইবো না,

কিংবা ঘুমোতে, কিংবা শুনতে, কিংবা ভালোবাসতে।

নিজেকে অবরুদ্ধ অনুভব করা, রক্তের ভয়হীন,

সময় আর ইন্দ্রজালের বাইরে, তোমার নিজের ভয়ের মধ্যে,

আর তোমার গুরুতর মানসিক যন্ত্রণায়,

আর তোমার হৃৎস্পন্দনের মাঝে ।

এই সমস্ত পাগলামি, যদি আমি তা তোমায় জিগ্যেস করি, তোমার নৈঃশব্দে,

কেবল একটিমাত্র বিভ্রম থাকবে ।

আমি তোমাকে হিংস্রতার জন্য বলি, তুচ্ছতায়, আর তুমি,

তুমি আমাকে দাও করুণা, তোমার আলো আর তোমার উষ্ণতা ।

আমি তোমাকে আঁকতে চাই, কিন্তু তার জন্য কোনো রঙ নেই,

কেননা এতো ধরণের রয়েছে, আমার বিভ্রান্তিতে,

আমার পরম প্রেমের অধিগম্য আধার ।

~

আমার দিয়েগো

আমি আর একা নই ।

তুমি আমার সঙ্গে-সঙ্গে থাকো ।

তুমি আমাকে ঘুম ওআড়িয়ে দাও আর তুমি আমাকে পুনরায় জীবিত করো।

তোমার হাতের সঙ্গে কোনোকিছুর তুলনা হয় না,

তোমার সবুজ-সোনা চোখের মতো কিছু নেই ।

আমার দেহ তোমাকে দিয়ে দিনের পর দিন পরিপূর্ণ ।

তুমি রাতের আয়না,

বিদ্যূতের তীব্র ঝলকানি,

পৃথিবীর সোঁদামাটি ।

তোমার বগলের গহ্বর আমার আশ্রয়,

আমার আঙুলগুলো তোমার রক্তকে স্পর্শ করে ।

তোমার পুুষ্পঝর্ণার উৎসে আমি সমস্ত আনন্দ অনুভব করতে চাই

যা আমার তা তোমার স্নায়ুর পথগুলোকে ভরে তোলার জন্য

যা আসলে তোমার ।

~

দিয়েগো

এটা ভালোবাসা নয়,

কিংবা কোমলতা

কিংবা আদর ।

এটা জীবন নিজেই, আমার জীবন,

যা আমি পেয়েছি তোমার হাতে দেখার পর,

তোমার মুখে আর তোমার বুকে ।

তোমার ঠোঁট থেকে আমার মুখে কাগজিবাদামের স্বাদ পাই ।

আমাদের জগত কখনও বাইরে যায়নি ।

কেবল একটা পাহাড়ই জানতে পারে আরেক পাহাড়ের মর্মস্হল ।

তোমার উপস্হিতি এক বা দুই মুহূর্তের জন্য ভাসে

যেন সকালের উদ্বিগ্ন অপেক্ষায় আমার সমস্ত অস্তিত্বকে মুড়ে নিয়েছে ।

আমি লক্ষ করি আমি তোমার সঙ্গে রয়েছি ।

ঠিক সেই মুহূর্তে সংবেদনে ভরপুর,

আমার হাত কমলালেবুতে ডুবে যায়,

আর আমার দেহ তোমার দুই বাহুর আলিঙ্গন অনুভব করে।

~

.

.

ভালোবাসা

যে ভালোবাসা তুমি চাইছ তা তোমার প্রাপ্য

আলুথালু,

যে সমস্ত কারণে তোমাকে করে তোলে তার জন্য

তাড়াতাড়ি উঠে দাঁড়াও,

কারণ রাক্ষসেরা তোমাকে দেবে না

ঘুমোতে ।

তোমার এক ভালোবাসা প্রাপ্য যা তোমাকে দেবে

নিরাপদ থাকার অনুভূতি,

জগতকে খেয়ে ফেলার সামর্থ্য

যখন সে তোমার পাশাপাশি হাঁটে,

তোমার জড়িয়ে ধরার সেই অনুভবগুলো

ত্বকের জন্য নিখুঁত ।

এক ভালোবাসা তোমার প্রাপ্য যা নাচতে চায়

তোমার সঙ্গে,

যা তোমার প্রতিবার মনে হবে স্বর্গ

তোমার চোখের দিকে তাকিয়ে আছে,

যে তুমি কখনও অবসাদে ভোগো না

তোমার অভিব্যক্তি বুঝে নিতে ।

এক ভালোবাসা তোমার প্রাপ্য তুমি শুনতে পাও

যখন তুমি গান গাও,

যে তুমি নিজেকে সমর্থন করো যখন তুমি উদ্ভট কাজ করো,

তা তোমার স্বাধীনতাকে শ্রদ্ধা করে,

তুমি তোমার উড়ালে নিজের সঙ্গে থাকো,

যে পুরুষটি পড়ে যাবার ভয়ে ভীত নয় ।

এক ভালোবাসা তোমার প্রাপ্য যা তোমায় দূরে নিয়ে যায়

মিথ্যা থেকে

যে তুমি স্বপ্নকে নিয়ে আসো,

কফি

আর কবিতা ।

About anubadak

আমি একজন অনুবাদক । এতাবৎ রেঁবো, বদল্যার, ককতো, জারা, সঁদরা, দালি, গিন্সবার্গ, লোরকা, ম্যানদেলস্টাম, আখমাতোভা, মায়াকভস্কি, নেরুদা, ফেরলিংঘেট্টি প্রমুখ অনুবাদ করেছি ।
This entry was posted in Frida Kahlo and tagged . Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s